প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে তারা পদত্যাগপত্র জমা দিয়েছেন ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন এবং সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানী।তাদের সাম্প্রতিক কর্মকাণ্ডে আওয়ামী লীগ সভানেত্রী ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ক্ষুব্ধ হয়ে ভেঙে দেন ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় কমিটি। একাধিকবার গণভবনে গিয়েও প্রধানমন্ত্রীর সাক্ষাৎ পাননি ছাত্রলীগের এই দুই নেতা।
সদ্য সাবেক ছাত্রলীগের সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীকে আইনের আওতায় আনার দাবি জানিয়েছেন বিএনপির যুগ্ম-মহাসচিব হাবিব উন-নবী খান সোহেল। তিনি বলেছেন, শুধুমাত্র পদচ্যুত করলেই হবে না, অপরাধী হিসেবে তাদের বিচার করতে হবে।
তিনি বলেন, এদের তো বয়স বেশি না এদের তো গডফাদার আছে, বড় ভাই আছে যারা তাদের চাঁদাবাজি শিখিয়েছে শুধুমাত্র এই দুইজনের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিলেই হবে না। যারা এদের চাঁদাবাজি শিখিয়েছেন তাদেরও বিচারের আওতায় আনতে হবে।
রোববার দুপুরে জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে জাতীয়তাবাদী মৎস্যজীবী দল আয়োজিত বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির দাবিতে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে তিনি একথা বলেন।
ক্ষমতাসীন দলের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সমালোচনা করে সোহেল বলেন, আমি জানি হয়তো ওবায়দুল কাদের সাহেব কালকেই বলবেন ৮৬ কোটি টাকা কি কোন টাকা হলো? এমন কথা তিনি বলতেও পারেন বলবেনই না বা কেন যে দেশে পর্দার দাম ৩৭ লাখ টাকা, বালিশের দাম ৭ হাজার টাকা।


উল্লেখ্য,গত ৭ সেপ্টেম্বর রাতে গণভবনে আওয়ামী লীগের স্থানীয় সরকার ও সংসদীয় মনোনয়ন বোর্ডের যৌথ সভায় বাংলাদেশ ছাত্রলীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি রেজওয়ানুল হক চৌধুরী শোভন ও সাধারণ সম্পাদক গোলাম রাব্বানীর বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগ নিয়ে আলোচনা হয়

Sites