ক্ষমতা মানুষের কাছে খুবই গুরুত্বপূর্ণ একটি জিনিস। মানুষের জীবনের শ্রেষ্ঠ চাহিদাগুলোর মধ্যে একটি হল অর্থ আরেকটি হল ক্ষমতা। বস্তুত এই দুটি থাকলেই জীবনের সব চাহিদা গুলো অনায়াশেই পূরণ হয়ে যায়। অর্থ ক্ষমতা থাকলেই মানুষ ভাবে যে তারা স্বয়ংসম্পূর্ণ। বাস্তবে অনেক ক্ষেত্রে দেখা যায় অর্থ থাকলে ক্ষমতা আসে আবার ক্ষমতা দিয়ে অর্থ পাওয়া যায়। তবে যাই হোক নিঃসন্দেহে ক্ষমতা মানুষের চাওয়া-পাওয়ার একটি শ্রেষ্ঠ জিনিস।




ক্ষমতায় কিংবা ক্ষমতার কাছাকাছি গেলে মানুষ নাকি বদলে যায়, মানুষের মধ্যে মনস্তাত্ত্বিক একটা পরিবর্তন আসে। যোগাযোগে, দেখা সাক্ষাতে একটা ছাটাই বাছাই করে। সেন্সর করে চলে, বলে। কই মিসবাহ ভাইতো বদলালেন না৷ আগের মতোই আছেন। গলার স্বর, আমাদের মতো ছোটদের প্রতি স্নেহ, বড়োদের সম্মান, পরিচিত অপরিচিতদের সঙ্গে আন্তরিক ভাবে যথাসম্ভব বিনয়ে কথা বলা সবই আগের মতো। যেমনটা দেখতাম এক যুগ আগে।

তখন সুনামগঞ্জ থাকতাম। মিসবাহ ভাই, ব্যস্ততম আইনজীবী সঙ্গে শহরের সিনিয়র সাংবাদিক। আমরা যে কোনও সংবাদে তাড়াহুড়া করতাম। মিসবাহ ভাই খবরের সবকটা শব্দ পড়তেন। তারপর ইমেইল করতেন। মাঝে মাঝে বাইক চালাতে দেখতাম। মুখে সবসময় মৃদু হাসি থাকতো, সেই হাসি এখনো আছে। আমি অনেকদিন বাসায় এসে মুখে হাসি কীভাবে স্থায়ীভাবে ধরে রাখা যায় সেই চেষ্টা করেছি, হয় না। ওটা জন্মগত।

মিসবাহ ভাই এখন টানা দুবারের এমপি। সংসদে বিরোধী দলীয় হুইপ, স্বরাষ্ট মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ি কমিটির সদস্য। এলাকায় ঈর্ষনীয় কাজ করেছেন৷ সড়কপথে যাদুকাটার পারে গেলে কিছু উদাহরণ পাওয়া যায়। বেশিরভাগ সময় এলাকায় থাকেন, সারাদিন মানুষ নিয়ে থাকেন। সাধারণ মানুষ কোনও ভায়া ছাড়াই কথা বলতে পারে, দেখা করতে পারে, পাশে বসতে পারে। ঢাকায় আসলে থাকেন এমপি হোস্টেলে। মাঝে মাঝে যাই। বিনা নোটিশে গেলেও গিয়ে, প্রথম কাজ হলো খাবার টেবিলে বসে যাওয়া। কখনো না খেয়ে এসেছি বলে মনে পড়ে না৷ একদিন আমার বাসায় আমাকে দেখতে এসেছিলেন ভাবী, ভাতিজাসহ। অনেকগুলো ছবি তুলে দিয়েছি, ছবি তুলতে গিয়ে মিসবাহ ভাইর মধ্যে একটা সারল্যও দেখতে পেয়েছি। এমপি সুলভ গরিমা নাই। মনে হচ্ছিলো সারারাত ছবি তুললেও বাচ্চাদের মতো তৈরিই আছেন।



গত কয়েক বছরে সংসদ অধিবেশন চলাকালে দেশে সরকারি প্রতিষ্ঠানের অনিয়ম দুর্নীতি যা সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়েছে তা নিয়ে চিৎকার করে কথা বলতে দেখা গেছে মিসবাহ ভাইকে। জাতীয় পার্টিকে গৃহপালিত বিরোধী দল বলা হলেও সংসদে মিসবাহর ভাইয়ের আচরণে, বক্তব্যে, জেরায় কখনো সেটা দেখিনি।

মিসবাহ ভাইয়ের কথাবার্তা গোছানো, যুক্তিসংগত। আমি মিসবাহ ভাইর মধ্যে আরও বড়ো নেতৃত্বের, বড়ো সম্মানের আলো দেখতে পাই৷ শুভ জন্মদিন ভাই। আপনি যে দলই করুন না কেনো, দিনশেষে আপনি সাধারণ মানুষের দলে এটাই যেনো হয় আপনার চিরকালীন রাজনৈতিক পরিচয়।



মানুষ ক্ষমতা পাওয়ার লোভে অনেক কিছু করে থাকেন। ক্ষমতা পাওয়ার জন্য বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে থাকেন অনেকে। তবে ক্ষমতাপ্রাপ্ত হওয়ার পর সেই ক্ষমতা কে ভালো কাজে না লাগিয়ে অহংকার দাম্ভিকতা বেড়ে যায় অনেকের। রীতিমতো ক্ষমতার বড়াই করতে শুরু করেন অনেকেই। তবে তারা এটা ভুলে যান যে ক্ষমতা কখনোই চিরস্থায়ী হয় না। একসময় না একসময় ঠিকই ক্ষমতার অপসারণ ঘটে

Sites