প্রতিটি সন্তান যখন জন্ম নেয় তখন মা-বাবার ঘরকে আলোকিত করে। মা বাবার স্বপ্ন বাসনা তখন সন্তানকে ঘিরে বেড়ে উঠতে থাকে। সন্তানকে আদর স্নেহ দিয়ে লালন-পালন করে তথা সুসন্তান হিসেবে তাকে প্রতিষ্ঠা করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করে যায় পিতামাতা। সন্তান জন্মের সময় বা পরে অনেক সামাজিক কিংবা ধর্মীয় অনুশাসন অনেকেই মেনে চলে। ধর্মীয় অনুষ্ঠানে সন্তান জন্মের পর তার কানের কাছে আযান দিতে হয়।



পাখিটা তখন আমার সহধর্মিনীর সঙ্গে আষ্টেপৃষ্ঠে জড়িয়ে, সময় তখন কয়েক মাস চলে। থাইল্যান্ডের লেডি ডাক্তার বললেন তুমি কি জানতে চাও তোমার ছেলে না মেয়ে হবে?

আমি বললাম নাহ্! সে একটু আশ্চর্য হয়ে দেখলো আমায়। আমার স্ত্রীকেও আমি বলেছিলাম প্লিজ আমাকে জানিওনা কি হবে!

আমি আমার প্রাণপ্রিয় মাকে হারিয়েছিলাম, আমার অবচেতন মন বারবার কড়া নেড়ে জানাচ্ছিল আমার মেয়ে হবে। মহান রাব্বুল আলামিন খুশি হলে বান্দাকে কন্যা সন্তান দান করেন। আমি পাপী বান্দাকে সেই বরকত থেকে বঞ্চিত করা হয়নি।
আমার ছোট্ট মা যেদিন পৃথিবীতে এলো আমার চোখ ভেসে যাচ্ছিল জলে, নিজের মাকে ভেবে কাঁদছিলাম। কন্যা সন্তানের কানে নাকি আজান দিতে হয় না, আমি দিয়েছিলাম। আমি অনুভব করেছি, করছি বাবা মা আসলে কি! আমার মেয়েটা ওর মাকে পূর্ণ করেছে ভ্রূণাবস্থায় আর আমাকে পূর্ণ করেছে সময়ে সময়ে।

আমি যখন ওর চোখ দুটো দেখি, যখন ছবি দেখি আমার চোখ দিয়ে অনিয়ন্ত্রিতভাবে পানি আসতে থাকে.. মেয়েটার চেহারায় আমি প্রায়শই আমার মাকে খুঁজে পাই! বাবার ন্যাওটা হয়েছে মেয়েটা। রাতে প্রায় প্রতিদিনই বাবার বুকে এসে ঘুমুতে হবে। ভোরে ঘুম ভেঙে গেলে বলবে "এই বাবা উটো (ওঠো), দাঁড়াও এবং তারপর দুই হাত দিয়ে বাবাকে জড়িয়ে ধরে ঘুমুবে আর বাবাকে হাঁটতে হবে। ঘুম জড়ানো বাবা তখন বেশিক্ষণ হাঁটতে পারে না আবার পাখিকে নিয়ে খাটে ঘুমিয়ে যায়। বাসার বাইরে কোথাও গেলে বাবার কোল ছাড়া আর কারো কাছে যাবে না আমার এই পাখি।

পাখিটা আমার আর ওর মায়ের ব্যক্তিত্বের অনেকখানিই পেয়েছে। যখন আমার বৈশিষ্ট্যগুলো ছোট্ট মায়ের মাঝে দেখি, তখন মনে হতে থাকে বড় স্বার্থক এই বেঁচে থাকা!

আমার সোনা পাখিটা আজ তিন (৩) বছর পূর্ণ করলো!

আমার চাওয়া এটুকুই মা "একজন মানবিক মানুষ হও" আল্লাহ যেন আমাকে আর তোমার মাকে তোমাকে সেভাবে গড়ে তোলার তৌফিক দান করেন! কোনো হিংসা, অহংকার যেন তোমায় স্পর্শ না করতে পারে মা..

উদার মনের একজন মানবিক মানুষ হয়ে আমাদের সকলকে সমৃদ্ধ করো ’মা’

কন্যা সন্তান পিতা মাতার জন্য আশীর্বাদ; এই আশীর্বাদ দিয়ে সর্বশক্তিমান সবাইকে ঋদ্ধ করুন!


সন্তান মা-বাবার কাছে আল্লাহর বড় নিয়ামত। প্রতিটি সন্তান যেমনই হোক মা-বাবার কাছে সে যেন অমূল্য। সন্তানকে ঘিরে তাদের জীবনের নতুন অধ্যায় এবং নতুন ভাবে পথ চলা শুরু হয়। ব্যক্তিগত জীবনে মা-বাবার দায়িত্ববোধ বেড়ে যায়। এবং তাদের চিন্তা-চেতনায় স্বপ্নে সন্তানকে লালন পালন করাটাই বেশি জরুরি হয়ে পড়ে। সন্তানের ভালো-মন্দ দেখভাল করা এবং তার সার্বিক খেয়াল রাখে বাবা-মা

Sites