আগে কখনো এই ধরনের পরীক্ষায় বসার অভিজ্ঞাত ছিল না, এমনকি পরীক্ষার ধরন সম্পর্কেও ছিল না কোনোরকম ধারণা। অথচ এমন এক অদ্ভূত পরীক্ষায় অংশ নিয়ে সবাইকে চমকে দিয়েছে। শুধু চমকে দেওয়া বললে কম বলা হবে, বুদ্ধিমত্তার পরীক্ষায় ছাড়িয়ে গেছে আলবার্ট আইনস্টাইন ও স্টিফেন হকিংকে! যার সম্পর্কে এতো কথা বলা, সেই বিস্ময় বালকের নাম অর্ণব শর্মা। আর তার বয়স মাত্র ১১ বছর!
বুদ্ধিমত্তার পরীক্ষাগুলোর মধ্যে মেনসা টেস্ট অন্যতম। এটা এতোটাই কঠিন এক পরীক্ষা যে সবাই এতে অংশ নিতে পারে না, বলা ভালো অংশ নেয়ার সুযোগও পায় না। দুই সপ্তাহ আগে এক প্রকার বিনা প্রস্তুতিতে মেনসা টেস্টে অংশ নিয়ে অর্ণব স্কোর করে ১৬২; যা আলবার্ট আইনস্টাইন ও স্টিফেন হকিংয়ের থেকে দুই পয়েন্ট বেশি। তার সঙ্গে আরো সাত আট জন পরীক্ষায় বসেছিল, যাদের দুই-একজন বাদে সবাই প্রাপ্তবয়স্ক। মৌখিক যুক্তি দক্ষতার পরীক্ষায় তার প্রাপ্ত নম্বর তাকে অনন্য উচ্চতায় নিয়ে গেছে। বুদ্ধিমত্তার দিক থেকে দেশের এক শতাংশ মেধাবীর তালিকায় উঠে গেছে অর্ণব।
ভারতীয় বংশোদ্ভূত অর্ণব শর্মা বাবা-মায়ের সঙ্গে ইংল্যান্ডের দক্ষিণাঞ্চলীয় শহর রিডিংয়ে বাস করে। পরীক্ষার আগে তার মধ্যে ছিল না কোনো ভয় কিংবা উৎকণ্ঠা। পরীক্ষা দেওয়ার পর আবার পরিবারের সবাই খুব চিন্তিত ছিল কিন্তু তারা ফলাফল শুনে ভীষণ খুশি হয়েছেন। পরিবারের আর কেউ অর্ণবের মতো আইকিউ’র অধিকারী কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তার মা মিশা ধামিজা শর্মা বলেন, ওর বাবা বেশ বুদ্ধিমান হলেও সেটি ছেলের এই ফলাফলের সঙ্গে তুলনা করার মতো তেমন কিছু নয়।–এনডিটিভি অবলম্বনে

Sites