পৃথিবীজুড়ে ভিন্ন স্বভাবের অনেক মানুষই আছেন। কিন্তু এদের মধ্যে এমন একজন ছিলেন যাকে মানুষ হিসেবেই গণ্য করা হয় না। যার ভয়ঙ্কর রুপ ও নিষ্ঠুরতার কাহিনী শুনলে আজো মানুষের বুক কাঁপে। তিনি হলেন- উগান্ডার সাবেক স্বৈরশাসক ইদি আমিন। বিশ্বের সবচেয়ে ভয়ঙ্কর ও নিষ্ঠুর শাসক হিসেবে তাকে গণ্য করা হয়। নিষ্ঠুরতার এক পর্যায়ে মানুষের মাংশ খাওয়া শুরু করেন এই স্বৈরশাসক।
এই ব্যক্তি ৪ বছর প্রেসিডেন্ট থাকাকালীন মানুষের উপর এতো নির্যাতন করেছেন, যার বর্ণনা শুনলে মানুষের বুক কাঁপে। তার শাসনামলে প্রায় ৬ লাখ মানুষকে হত্যা করা হয়। তিনি ফ্রিজে মানুষের কাটা মাথা ও অন্যান্য অংঙ্গ মজুদ রাখতেন। মানুষের মাংস খাওয়ার নেশা ছিল তার। এসব নিষ্ঠুর কর্মকাণ্ডের কারণে তাকে ‘ ম্যাড ম্যান অব আফ্রিকা’ বলা হতো।

সাবেক এই স্বৈরশাষক ইদি আমিন নিষ্ঠুরতার সব সীমা অতিক্রম করেছেন। সে তার দেশের সুন্দর মেয়েদের ধর্ষণ করতেন এবং তাদের কোনো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করতেন না। তাদের জীবিত কবর দিতেন এবং কুমিরকে খাওয়াতেন।

১৯৭৯ সালে তাঞ্জানিয়া এবং আমিন বিরোধী উগান্ডার সেনা তাকে ক্ষমতাচ্যুত করে। এরপর আমিন পালিয়ে সৌদি আরবে চলে যান। সেখানে ২০০৩ সালে তার মৃত্যু হয়।

Sites