একমাস আগে ঘটে যাওয়া ঘটনা এখন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপক আলোচনার সৃষ্টি করে দিয়েছে।নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে এই ঘটনাটি ঘটেছিল এবং যখন ঘটেছিল এ ঘটনাটি তখন সেটি প্রকাশ করা হয়নি বরং ওই ঘটনার ভিডিও ক্লিপ থেকে মাঝেমধ্যেই সেগুলো দিয়ে ব্ল্যাকমেইল করার চেষ্টা করা হতো বেগমগঞ্জে সেই গৃহবধূকে এবং যখন এই ভিডিও করা হয়েছিল তখন এটি ছড়িয়ে দেওয়ার কথা সেই সময়


সারাদেশে অব্যাহতভাবে না/রী /নি/পী/ড়/ন, খু/ন-/র্ধ/ষ/ণ ও নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের একজন /না/রী/কে/ /বি/ব/স্ত্র/ ক/রে /ধ/র্ষ/ণ/চে/ষ্টা/র প্র/তিবাদ ও তী/ব্র নি/ন্দা জানিয়েছেন ইসলামি গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান সাবেক সংসদ সদস্য এম এ আউয়াল।

তিনি বলেন, সারাদেশে অব্যাহতভাবে /ধ/র্ষ/ণ ও না/রী নি/পী/ড়/ন কো/নোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। এর বিরুদ্ধে সামাজিক সচেতনতা তৈরি করতে সারাদেশের পাড়ায়-পাড়ায় তরুণ-যুবা ও অভিজ্ঞদের নেতৃত্বে নারী নিপীড়নবিরোধী কমিটি গড়ে তুলতে হবে।

আজ রাজধানীর কলাবাগান কার্যালয়ে আয়োজিত দলীয় বৈঠকে এসব কথা বলেন তিনি।
এম এ আউয়াল বলেন, নোয়াখালীর বেগমগঞ্জে একজন নারীর ওপর যেভা/বে /নি/র্যা/ত/ন /হয়েছে, তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। একটি সভ্যদেশে এই ধরনে/র নি/পী/ড়/ন আ/র সহ্য করার সুযোগ নেই। বেগমগঞ্জের/ নি/পী/ড়/নে/র/পে/ছনে যাদের যুক্ততা আছে, তাদের প্রত্যেককে দ্রুত গতিতে বিচারের আওতায় এনে সাজা নিশ্চিত করতে হবে।

এম এ আউয়াল দাবি করেন, /নি/র্যা/ত/নে/র /শি/কা/র নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের ওই নারীকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে। ইসলামিক গণতান্ত্রিক পার্টির বৈঠকে দলের মহাসচিব অ্যাডভোকেট নুরুল ইসলাম খানসহ কেন্দ্রীয় নেতারা ঘটনার বিচার দাবি করেন ও তীব্র নিন্দা জানান

ইসলামিক গণতান্ত্রিক পার্টির চেয়ারম্যান এবং একসময়ের সংসদ সদস্য এমএ আউয়াল এবারনোয়াখালীর বেগমগঞ্জে ঘটে যাওয়া ঘটনাটি প্রতিক্রিয়া জানিয়েছেন তিনি জানিয়েছেন কমিটি গড়ে তোলার মাধ্যমে এগুলোর ব্যাপারে সোচ্চার করা যাবে এবং সেই সাথে মানুষের মনে ইতিবাচক ধারণা জন্ম নেবে। তিনি আরো বলেছেন নোয়াখালীর বেগমগঞ্জের আলোচিত ওই নারীকে রাষ্ট্রীয়ভাবে ক্ষতিপূরণ দিতে হবে

Sites